হামদর্দ কাশির সিরাপ

হামদর্দ কাশির ৫ টি কার্যকর সিরাপ

ঋতু পরিবর্তনের কারনে সর্দি, কাশির প্রকোপ দেখে দেয়। কাশি বিরক্তি ও যন্ত্রণা দায়ক একটি ব্যাপার। কাশির কারনে গলা ও বুকে অস্বস্তি অনুভব হয়। এই কাশি আবার দীর্ঘমেয়াদী হলে নানা ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। তাই কাশি থেকে মুক্তি পেতে আজকের আলোচনা। 

আজ আমরা জানবো সর্দি ও কাশির চিকিৎসায় হামদর্দ কাশির সিরাপ সম্পর্কে। হামদর্দ এর কাশির সিরাপ সর্দি ও দীর্ঘমেয়াদী কাশির চিকিৎসায় কার্যকর ভূমিকা রাখে।  

সর্দি, কাশির কারনে আমরা অনেকেই বাজার থেকে বিভিন্ন ট্যাবলেট বা সিরাপ খেয়ে থাকি। কিন্তু এ সমস্ত ওষুধ মানুষের স্বাস্থ্যের পক্ষে ঝুঁকির কারন হতে পারে। 

হামদর্দ কাশির সিরাপ ৫ টি কার্যকর সিরাপ

হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ এর উৎপাদিত কাশির সিরাপ বহু বছর ধরে প্রচলন রয়েছে যা সম্পুর্ণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত। চলুন জেনে নেয়া যাক হামদর্দ এর বেশ কিছু কাশির সিরাপ সম্পর্কে।

১. সাদুরী সিরাপ

সাদুরী প্রাকৃতিক কফ ও ফুসফুসের শক্তি বর্ধক ওষুধ। দীর্ঘমেয়াদী পুরাতন কাশি অনেক সময় সারতে চাই না। সাদুরী সিরাপ ব্যবহারে তা দ্রুত সেরে যায়।

সাদুরী সিরাপে রয়েছে বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান  যেমন তুলসী, বাসক, বনসরিষা, পিপুল, ওন্নাব, জুফা ফুল, যষ্টিমধু, আদা এবং অন্যান্য উপাদান পরিমাণ মতো রয়েছে। চলুন এবার জেনে নিই সাদুরী সিরাপের কার্যকারিতা, সেবন বিধি ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে। 

সাদুরী সিরাপের কার্যকারিতা 

সাদুরী ফুসফুসে জমে থাকা শ্লেষ্মা বের করতে সক্রিয় ভূমিকা রাখে। এটি ফুসফুসের শক্তি বৃদ্ধি করে এবং দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এটি পুরাতন কাশি, ব্রংকাইটিস, অ্যাজমা, এলার্জি ও জ্বর নিরাময়ে কার্যকরী। এই সিরাপ ভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট সংক্রমণ, ব্রঙ্কোনিউমোনিয়া, কণ্ঠনালীর প্রদাহ, দীর্ঘমেয়াদী ব্রংকাইটিস, স্বরযন্ত্রের প্রদাহ ও স্বরভঙ্গের চিকিৎসায় কার্যকরী। সাদুরী সর্দি, কাশি, নিউমোনিয়া, ইনফ্লুয়েঞ্জা এবং হাঁপানি রোগ প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। এছাড়াও সাদুরী জীবাণু নাশক, কফ নিঃসারক, কাশি নিবারক ও শ্বাসনালী সম্প্রসারক হিসেবে কাজ করে এবং কাশি জনিত খিঁচুনি নিয়ন্ত্রণ করে। 

সাদুরী সিরাপের সেবন বিধি 

অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের জন্য ২ চা চামচ (১০মিলি) দৈনিক দুই থেকে তিন বার সেবন করতে হবে। 

আর একজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের জন্য ১/২-১ চা চামচ (২.৫-৫মিলি) দৈনিক দুই থেকে তিন বার সেব্য।

সাদুরী সিরাপের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া 

সাদুরী সিরাপ নির্ধারিত সময়ে সঠিক মাত্রায় সেবন করলে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় না। তবে এই সিরাপ সেবনের পূর্বে অবশ্যয় একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে। 

২. এলভাসিন

এলভাসিন শুকনো কাশি নিরাময়ে অত্যন্ত কার্যকর। এলভাসিন বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান যেমন বাসক পাতা, খেতমী বীজ,শাপলা ফুল,  আরবী গাম, যষ্টিমধু, কাতিরা গাম, থানকুনি, খোব্বাজী বীজ, সাপেস্তান, বিহিদানা এবং আরও অনেক ঔষধি উপাদান দিয়ে তৈরি অনন্য সিরাপ। এখন আমরা জেনে নিব এলভাসিন সিরাপের কার্যকারিতা, সেবন বিধি ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে। 

এলভাসিন সিরাপের কার্যকারিতা 

এলভাসিন সিরাপ শুকনো কাশি ও সর্দি নিরাময়ে অত্যন্ত কার্যকর। এই সিরাপ শ্বাসনালীকে সম্প্রসারিত করে এবং শ্বাসনালীর খিঁচুনি প্রতিরোধ করে ও শ্বাসকষ্ট দূর করে। এলভাসিন জমাট বাঁধা কফ তরল করে বের করতে সাহায্য করে। এটি প্রদাহ নাশক ও আলসার নিবারক হিসেবে কাজ করে। এই সিরাপ কন্ঠনালীর প্রদাহ ও ব্রংকাইটিস নিরাময়ে অত্যন্ত কার্যকর। এলভাসিন বয়স্ক ও শিশু উভয়ের জন্যই নিরাপদ, সুসহনীয় এবং এলার্জি ও তন্দ্রাচ্ছন্নতা মুক্ত একটি কার্যকরী কাশির সিরাপ। 

এলভাসিন সিরাপের সেবন বিধি 

ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের জন্য ২ থেকে ৫ চা চামচ (১০-২৫ মিলি) দৈনিক দুই বার সেব্য।

পাশাপাশি একজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক অর্থাৎ শিশুদের জন্য ১ থেকে ২ চা চামচ (৫-১০ মিলি) দৈনিক দুই বার সেবন যোগ্য। 

এলভাসিন সিরাপের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া 

বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে সঠিক মাত্রায় সেবনে এই ওষুধের কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় না। 

৩. সুয়ালিন

ঠান্ডা, সর্দি, কাশি ও গলা ব্যথা নিরাময়ে অব্যর্থ হারবাল ওষুধ। সুয়ালিন যষ্টিমধু, বাসক পাতা, পুদিনা, তুলসী, আনীসূন তেল, ইউকেলিপ্টাস তেল, দারচিনি তেল, কাবাবচিনি তেল এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি অনন্য ট্যাবলেট। এবার জেনে নিন সুয়ালিন ট্যাবলেট এর কার্যকারিতা, সেবন বিধি ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে। 

সুয়ালিন এর কার্যকারিতা 

সর্দি ও কাশির ফলে শ্বাসনালী বন্ধ হয়ে শ্বাস গ্রহণে যে কষ্ট হয় সুয়ালিন শ্বাসনালী পরিস্কার   করে কফ বের করতে সাহায্য করে। এটি খুসখুসে কাশি, শ্বাসনালীর প্রদাহ, গলা ব্যথা, টনসিলের ব্যথা, স্বরভঙ্গ ও ইনফ্লুয়েঞ্জা এবং ব্রংকাইটিস দ্রুত উপশম করে। এছাড়াও সুয়ালিন ট্যাবলেট শ্বসনতন্ত্রের শক্তি ও কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে থাকে। 

সুয়ালিন এর সেবন বিধি 

রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের জন্য ২ টা ট্যাবলেট দৈনিক তিন থেকে চার বার চুষে খেতে হবে। 

আর একজন অপ্রাপ্ত অর্থাৎ ৬ থেকে ১২ বৎসর বয়সের জন্য ১ টা ট্যাবলেট তিন থেকে চার বার চুষে খেতে হবে। 

সুয়ালিন এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া 

ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী সুয়ালিন ট্যাবলেট নির্ধারিত সময়ে সঠিক মাত্রায় সেবন করলে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া পরিলক্ষিত হয় না।

৪. জোশিনা

জোশিনা ঠান্ডা-সর্দি, কাশি ও গলা ব্যথা নিরাময়ে কার্যকরী ওষুধ। জোশিনা বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান যেমন যষ্টিমধু, সাপেস্তান, খোব্বাজী বীজ, খেতমী বীজ, বনফশা, ওন্নাব, গাওজবান ইত্যাদির সমন্বয়ে প্রস্তুত একটি অনুপম হারবাল ওষুধ। জেনে নিন জোশিনা ওষুধের কার্যকারিতা, সেবন বিধি ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে।

জোশিনা এর কার্যকারিতা 

জোশিনা সর্দি, কাশি, সর্দি-জ্বর, মাথা ব্যথা, গলা ব্যথা, ইনফ্লুয়েঞ্জা ইত্যাদি রোগের চিকিৎসায় অত্যন্ত কার্যকর হারবাল চা। এটি জ্বর, সর্দি, কাশি নিরাময়ের পাশাপাশি গলা ব্যথা, টনসিলের প্রদাহ, ব্রঙ্কিয়াল অ্যাজমা ও পেপটিক আলসারের চিকিৎসায় অত্যন্ত কার্যকরী। এটি রোগ সংক্রমণ দূর করে এবং বুকে জমাট বাঁধা কফ তরল করে বের করে দেয় এবং শ্বাসকষ্ট দূর করে। এছাড়াও জোশিলা শ্বসনতন্ত্রের বিভিন্ন রোগের চিকিৎসায় কার্যকর ভূমিকা পালন করে। 

জোশিনা এর সেবন বিধি 

রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ১ টা স্যাচেট এক কাপ গরম পানিতে মিশিয়ে দৈনিক দুই থেকে তিন বার সেবন করতে হবে। 

জোশিনা এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

জোশিনা যেহেতু সম্পুর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি তাই এটা সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় না। তবে ওষুধ সেবনের পূর্বে একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়। 

৫. লউক সাপেস্তান

ঠান্ডা-সর্দি ও দীর্ঘমেয়াদী কাশিতে কার্যকরী ওষুধ। 

লউক সাপেস্তান নানা উদ্ভিজ্জ উপাদান ওন্নাব, খেতমী বীজ, খোব্বাজী বীজ, সাপেস্তান, যষ্টিমধু, বিহিদানা ও অন্যান্য উপাদানের সমন্বয়ে প্রস্তুত অনন্য ওষুধ। জেনে নিন লউক সাপেস্তান এর কার্যকারিতা, সেবন বিধি ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে। 

লউক সাপেস্তান এর কার্যকারিতা 

লউক সাপেস্তান শ্লেষ্মা নিঃসরণ করে গলা পরিস্কার করে। এটি বুকে জমাট বাঁধা কফ তরল করে তা বের করে দিতে সাহায্য করে। লউক সাপেস্তান সর্দি, সর্দি জনিত মাথা ব্যথা ও ব্রংকাইটিস দূর করে। এই ওষুধ শ্বাসনালীর খিঁচুনী দূর করে এবং দীর্ঘমেয়াদী কাশি নিবারকে সাহায্য করে। এছাড়াও লউক সাপেস্তান সাইনুসাইটিস ও ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগের চিকিৎসা অত্যন্ত সুফলদায়ক। 

লউক সাপেস্তান এর সেবন বিধি 

রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের জন্য ১ চা চামচ দৈনিক দুই থেকে তিন বার সেবন যোগ্য। 

আর অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ১/২ চা চামচ দৈনিক দুই থেকে তিন বার সেব্য।

লউক সাপেস্তান এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া 

নির্ধারিত সময়ে সঠিক মাত্রায় এই ওষুধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া পরিলক্ষিত হয়নি। তবে লউক সাপেস্তান সেবনের পূর্বে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ অবশ্যয় নিতে হবে। 

কোথায় পাবেন হামদর্দ কাশির সিরাপ?

হামদর্দ কাশির সিরাপ পেতে চাইলে অর্ডার করুন দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে হেলদি স্পোর্টস অনলাইন শপেহামদর্দ এর যেকোনো ঔষধ এবং পণ্য আপনি ঘরে বসেই অর্ডার করতে পারেন এবং সঠিক ও নায্য মূল্যে। 

উপসংহার 

হামদর্দ কাশির সিরাপ সাদুরী, এলভাসিন, সুয়ালিন, জোশিনা ও লউক সাপেস্তান সর্দি, কাশির চিকিৎসায় কার্যকর ভূমিকা রাখে। নানা ধরনের উপকারী ঔষধি উদ্ভিদের নির্যাস থেকে তৈরি হামদর্দ কাশির সিরাপ বহু বছর ধরে মানুষ ব্যবহার করে উপকৃত হচ্ছেন।

সম্পূর্ণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত হামদর্দ কাশির ওষুধ সেবনে আপনি দীর্ঘমেয়াদী সর্দি ও কাশি থেকে মুক্তি পেতে পারেন। তাই একজন অভিজ্ঞত ডাক্তারের পরামর্শ নিন এবং হামদর্দ এর কাশির ওষুধ সেবন করুন। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top